সাফারী কিংডম

সাফারী কিংডমে পর্যটকগণ পায়ে হেঁটে ঘুরে বেড়াতে পারবে এবং প্রাণিকূলকে ছোট-খাট বেস্টনীর মধ্যে আবদ্ধ রাখা হবে। সাফারী কিংডমের মূল লক্ষ্য হচ্ছে: বিভিন্ন বন্যপ্রাণীর নৈপূণ্য ও খেলাধুলা প্রদশর্ণের মাধ্যমে পর্যটকদের চিত্তবিনোদন, বন্যপ্রাণী সংক্রান্ত শিক্ষা ও গবেষণার সুযোগ সৃষ্টি করা। সাফারী কিংডম ৫৭৫.০ একর এলাকা নিয়ে প্রতিষ্ঠা করা হবে। এর প্রধান কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে প্রকৃতিবীক্ষণ কেন্দ্র, জিরাফ ফিডিং স্পট, পেলিকেন আয়ল্যান্ড, বোটিং ও লেকজোন; বৃহৎ আকারের গাছপালা ঘেরা ক্রাউন্ট ফিজেন্ট এভিয়ারী, ধনেশ এভিয়ারী, প্যারট এভিয়ারীসহ দেশি-বিদেশী পাখির পাখীশালা (আরধৎু), কুমির পার্ক, অর্কিড হাউজ, প্রজাপতি কর্ণার, শকুন ও পেঁচা কর্ণার, এগ ওয়ার্ল্ড, কচ্ছপ-কাছিম ব্রিডিং সেন্টার, লামচিতা হাউজ, ক্যাঙ্গারু বাগান, হাতী-শো গ্যালারী, ময়ুর/মেকাউ ওপেন ল্যান্ড, সর্প পার্ক, ফেন্সি কার্প গার্ডেন, ফেন্সি ডার্ক গার্ডেন, লিজার্ড পার্ক, ফুডকোটর্ , পর্যবেক্ষন টাওয়ার ও জলাধার ইত্যাদি।


প্রকৃতি বীক্ষণ কেন্দ্র


এ কেন্দ্রে বাংলাদেশের প্রায় সকল ধরণের বনাঞ্চলেন গাছপালা ও বন্যপ্রানীর মডেল, মুরাল ও ষ্টাফিং তৈরী করে আলো ও শব্দধ্বনি প্রবাহের মাধ্যমে বন্যপ্রাণী ও বনাঞ্চল সম্পর্কে দর্শকদেরকে সাম্যকে ধারণা প্রদান করা হয় । প্রকৃতি বীক্ষণ কেন্দ্রে প্রায় ৯৮০ ধরণের বন্যপ্রাণী ও অসংখ্য গাছ-পালার মডেল মুরাল তৈরী করা হযেছে । প্রায় ১২ মিনিটের দীর্ঘ একটি স্বব্যখ্যায়িত অডিও-ভিস্যুয়াল (Audio-visual ) প্রোগ্রামের মাধ্যমে দর্শকগণ আনন্দ লাভ করতে পারবেন ।

বায়োডাইভারসিটি পার্ক


এই পার্ক প্রতিষ্ঠার মূল লক্ষ্য হচ্ছে বিরল, বিলুপ্তপ্রায়, দূলর্ভ ও বিপন্ন প্রজাতির গাছের জীন-পুল সংরক্ষণ (এবহব চড়ড়ষ ঈড়হংবৎাধঃরড়হ) করা। এছাড়া এ পার্কে শালবন এবং জীব-বৈচিত্র্য সংরক্ষণের নিমিত্তে উপযোগী বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষরোপণ করা হবে। এ পার্কটিকে জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যান ও বলদা গার্ডেনের র‌্যাপলিকা হিসাবে স্থাপন করা হবে। বায়োডাইভারসিটি পার্কের এলাকা নিধারণ করা হয়েছে ৯৬৫.০ একর।


এক্সটেনসিভ এশিয়ান সাফারী পার্ক


এই পার্কে সকল এশীয় তৃনভোজী এবং ছোট মাংসাশী প্রাণি, পাখি, সরিসৃপ ও উভচর প্রাণি নিয়ে এক্সটেনসিভ সাফারী পার্ক প্রতিষ্ঠা করা হবে। বন্যপ্রাণির আবাসস্থালের জন্য উপযোগী চারণ ভূমি, বন বাগান, জলাধার, ক্যাম্প প্রতিষ্ঠা ও বিদ্যমান প্রাকৃতিক বনভূমির উন্নয়ন করা হবে। এই পার্কের এলাকা নির্ধারণ করা হয়েছে ৮২৪ একর।



সাফারী কিংডম এর দর্শনীয় স্হাপনাসমূহ




সাফারী কিংডম এর ধারনকৃত কিছু ছবি